শিরোনাম

সৈয়দপুরে শহীদ পরিবারের সন্তানকে জড়িয়ে অপপ্রচারের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

নীলফামারীর সৈয়দপুরে মহান মুক্তিযুদ্ধের শহীদ পরিবারের সন্তান সাবেক বিলুপ্ত হওয়া সৈয়দপুর জেলা যুবলীগের দুই যুগের অধিক সময়ের সফল সভাপতি, সম্পাদক বর্তমান সৈয়দপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মহসিনুল হক মহসিন কে জড়িয়ে মিথ্যা অসত্য সংবাদ পরিবেশনের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন হয়েছে।

সোমবার(২৪আগষ্ট)সকাল১১টায় সৈয়দপুর আওয়ামীলীগের নিজেস্ব কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

শহীদ পরিবারের সন্তান উপজেলা আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক মহসিনুল হক মহসিন লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন।

এসময় তিনি উপস্থিত সাংবাদিকদের বলেন, স্বাধীনতার ৪৯ বছর পরেও ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের চিহ্নিত রাজাকার জল্লাদ নঈম খাঁনের সন্তান দিল নেওয়াজ খাঁন মিথ্যা অসত্য বানোয়াট ও বিভ্রান্তিকর তথ্য দিয়ে স্বাধীনতা যুদ্ধে সকল শহীদদের সন্তানদের হেয় প্রতিপন্ন করার স্পর্ধা দেখিয়েছে।সে আমার রাজনৈতিক প্রতিপক্ষের সাথে মিলে যুদ্ধাপরাধীর সন্তানেরৎ যোগসাজস করে আমার বিরুদ্ধে বিভিন্ন রকম অপপ্রচার মিথ্যা বানোয়াট কথা বলে সামাজিক ও রাজনৈতিক ভাবে হেয় প্রতিপন্ন করছে।

রাজাকারের সন্তান দিল নেওয়াজ খাঁন নিজে গুনকীর্তন করে আপনাদের সামনে ভুল তথ্য দিয়ে বিভ্রান্তি করছে।ভুল তথ্য খন্ডন করে তিনি বলেন, দিল নেওয়াজ খান মুলত নিজের সকল অপরাধ ঢাকার জন্য নিজেকে উর্দুভাষী কমিউনিটির প্রতিনিধি বলে দাবি করেছেন।এভাবে হয়তো সে নিজেকে উর্দুভাষীদের ত্রানকর্তা প্রামাণ করতে চাইছে।সে উদ্দেশ্যই সুকৌশলে বাঙ্গালী ও অবাঙ্গালীদের মধ্যে একটি বিভাজন তৈরী করে অন্য কারো রাজনৈতিক ফায়দা হাসিলের প্রচেষ্টা চালাচ্ছে।ইতিপূর্বে আমি বিহারী বা বাঙ্গালী শব্দ উচ্চারণ করি নাই।তারপরও সে বিহারী ইস্যু নিয়ে ব্যক্তিগত ফায়দা হাসিলের অপচেষ্টা করছে।

আমি এখানে উর্দুভাষী বা বাংলাভাষীদের নিয়ে কথা বলতে চাই না।আমি দ্ব্যার্থহীন ভাষায় বলতে চেয়েছি স্বাধীনতার পক্ষের শক্তি ও স্বাধীনতার বিপক্ষের শক্তি নিয়ে কথা বলতে চেয়েছি।যা জননেত্রী শেখ হাসিনার আদর্শ বলে বিশ্বাস করি।

দিল নেওয়াজ খানের পিতা নঈম খান বা নঈম গুন্ডা পার্বতীপুরের একজন কুখ্যাত যুদ্ধাপরাধী ও রাজাকার হিসাবে পরিচিত।৭১ সালে স্বাধীনতার যুদ্ধে সে মানুষ খুন, গণহত্যা, লুন্ঠন, ধর্ষণ সহ এমন কোন হীন কাজ নাই যয় সাথে জড়িত ছিলো না। দিল নেওয়াজেথ পিতা যে যুদ্ধাপরাধী রাজাকার ছিলো স্বাধীনতার।

ভিন্নবার্তা/এসআর

আরো পড়ুুন