1. [email protected] : admin : jashim sarkar
  2. [email protected] : admin_naim :
  3. [email protected] : admin_pial :
  4. [email protected] : admin : admin
  5. [email protected] : Rumana Jaman : Rumana Jaman
  6. [email protected] : Saidul Islam : Saidul Islam
সাভারে এলজিএসপি-৩ এর অর্থায়নে প্রতিবন্ধীদের সহায়তা প্রদান |ভিন্নবার্তা

সাভারে এলজিএসপি-৩ এর অর্থায়নে প্রতিবন্ধীদের সহায়তা প্রদান

vinnabarta.com
  • প্রকাশ : মঙ্গলবার, ২৬ নভেম্বর, ২০১৯, ০৮:৫৮ অপরাহ্ন

সাভারের তেঁতুলঝোড়া ইউনিয়নে এলজিএসপি-৩ এর অর্থায়নে প্রতিবন্ধীদের মাঝে হুইল চেয়ার, সেলাই মেশিন, সাদাছড়ি, স্ট্রেচার, কৃত্রিম পাসহ বিভিন্ন সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। এসময় একই পরিবারের তিন প্রতিবন্ধী ভাইকে একটি একটি দোকান করে ব্যবসার জন্য মালামাল তুলে দেয়া হয়।

মঙ্গলবার দুপুরে তেঁতুলঝোড়া ইউনিয়ন পরিষদ চত্ত্বরে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

আয়োজিত অনুষ্ঠানে তেঁতুলঝোড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ফখরুল আলম সমরের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে প্রতিবন্ধীদের মাঝে বিভিন্ন সামগ্রী বিতরণ করেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমান এম.পি।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাভার উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও সাভার উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক মঞ্জুরুল আলম রাজীব, ডিস্ট্রিক্ট ফ্যাসিলিটের (ডিএফ) মোঃ জাবেদ ইকবাল চৌধুরী।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমান বলেন, এবার শীতের শুরুতেই সারাদেশে গরীব ও দুস্থদের মাঝে পাঁচ লক্ষ কম্বল বিতরণ করা হয়েছে। এছাড়া আমাদের কাছে প্রচুর কম্বল মজুদ রয়েছে। চাহিদা অনুযায়ী সেগুলো সারাদেশে বিতরন করা হবে এবং প্রয়োজনে শীতার্তদের মাঝে শুকনো খাবারও বিতরণ করা হবে বলে জানান তিনি।

অনুষ্ঠানে এলজিএসপি-৩ এর অর্থায়নে পাঁচ লাক্ষ টাকায় তিন প্রতিবন্ধী ভাইকে একটি দোকান ও মালামাল, ৫টি হুইল চেয়ার, দুটি স্পেশাল হুইল চেয়ার, ৩টি সেলাই মেশিন এবং ত্রিশটি সাদাছড়ি ও কালো চশমা বিতরন করা হয়েছে।

মালামালসহ দোকান পাওয়া তিনজন প্রতিবন্ধীই আপন ভাই। এরা হলেন তেঁতুলঝোড়া ইউনিয়নের রাজফুলবাড়িয়া গ্রামের নুরু মিয়ার ছেলে সুমন হোসেন (২২), কমল হোসেন (২৫), ইমন হোসেন (১৫)। এদের মধ্যে ইমন হোসেন পিএসসি পরীক্ষায় বৃত্তি পেয়েছেন। কিন্তু প্রতিবন্ধী হওয়ায় এবং অর্থের অভাবের আর পড়াশুনা করতে পারছেন না তিনি।

তাদের মা আয়েশা বেগম বলেন, আমার ছেলেরা ছোট বয়সে ভালই ছিলো। দশ বছর বয়সের পর থেকেই ধীরে ধীরে তাদের কোমর থেকে নীচের অংশ অবশ এবং অচল হয়ে পড়ায় তারা আর স্বাভাবিকভাবে চলাফেরা করতে পারছেনা। তাই অভাবের সংসারে গতি ফেরাতে ইউপি চেয়ারম্যান ফখরুল আলম সমর তিন ভাইকে একটি দোকান করে দিয়েছেন।

আইআই/শিরোনাম বিডি

আরো পড়ুন

মাসিক আর্কাইভ

© All rights reserved © 2021 vinnabarta.com
Customized By Design Host BD