শিরোনাম

রাজধানীতে মডেল নাজের ঝুলন্ত লাশ

ভিন্নবার্তা ডেস্ক:

রাজধানীর ভাটারা এলাকায় নিজের বাসায় ফ্যানের সঙ্গে ঝুলন্ত লাশ পাওয়া গেছে মডেল সাদিয়া ইসলাম নাজের (২১)। খবর পেয়ে মঙ্গলবার বিকালে পুলিশ গিয়ে বাসার দরজা ভেঙে ঝুলন্ত অবস্থায় লাশটি উদ্ধার করে ময়না তদন্ত শেষে লাশ নাজের পরিবারের কাছে হস্তান্তর করেছে।

ভাটারা থানাধীন বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার জি ব্লকের ২১ নম্বর রোডের ৭৯২ নম্বর বাসার দ্বিতীয় তলায় একটি ফ্ল্যাটে একাই থাকতেন মডেল নাজ। পুলিশ বলছে, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, মডেল নাজ আত্মহত্যা করেছেন। তবে কী কারণে আত্মহত্যা করেছেন তিনি- তা তদন্তের পর জানা যাবে।

নাজের বাবা মনিরুল ইসলামের বরাত দিয়ে ভাটারা থানার ওসি মো. মোক্তারুজ্জামান গণমাধ্যমকে বলেন, নাজ বাসাটিতে একাই থাকতেন। নাজের বাবা জানিয়েছেন, নাজের সঙ্গে মোবাইল ফোনে পারিবারিক কিছু বিষয় নিয়ে ঝগড়া হয়। রাত ১১টা পর্যন্ত বাবা-মেয়ের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। তারপর নাজের বাবা আর তার সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারছিলেন না। পরে তিনি জাতীয় জরুরি সেবা ‘৯৯৯’-এ ফোন করে বিষয়টি জানালে আমরা ভোররাতে নাজের বাসায় যাই।

ওসি বলেন, বাসায় গিয়ে ভেতর থেকে দরজার বন্ধ পাই। পরে দরজা ভেঙে ভেতরে ঢুকে গলায় শাড়ি পেচানো ফ্যানের সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় নাজকে দেখতে পাই। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ মর্গে পাঠানো হয়। সেখানে ময়নাতদন্ত শেষে নাজের লাশ তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করি।

এ ঘটনায় ভাটারা থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে জানান ওসি।

পুলিশ বলছে, ধারণা করা হচ্ছে, পারিবারিক বিষয় নিয়ে ঝগড়া-বিবাদের জেরে মডেল নাজ আত্মহত্যা করেছেন। তবে তদন্তের পর আসল বিষয়টি জানা যাবে। নাজ যে ফ্ল্যাটে থাকতেন সেখানে একটি সিসি ক্যামেরা আছে। সিসি ক্যামেরার ফুটেজ এনে তদন্ত করে দেখা হবে বলেও জানিয়েছে পুলিশ।

এদিকে মডেল নাজের লাশ উদ্ধার করা ভাটারা থানার এসআই আতিকুল রহমান গণমাধ্যমকে জানান, নাজের ঘর থেকে অন্যান্য আলামতের সঙ্গে একটি সুইসাইড নোটও উদ্ধার করা হয়েছে।

ভিন্নবার্তা ডটকম/এন

আরো পড়ুুন