শিরোনাম
রাত পোহালেই শপথ, ভারী অস্ত্রে রাজপথে ট্রাম্প সমর্থকরাঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন ভবনে আগুনরোহিঙ্গা সংকট দ্রুত সমাধানে একমত চীন বাংলাদেশ মিয়ানমারধর্ষিতার ছবি প্রকাশে নিষেধাজ্ঞা চেয়ে হাইকোর্টে রিট২০০০ কোটি টাকা পাচার : কারাগারে ফরিদপুরের ২ চেয়ারম্যানট্রাম্পের প্রত্যাহারের ‘ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা’ বজায় রাখবেন বাইডেনমুজিবুর রহমান দিলুর মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোকদেশে আরও ২০ মৃত্যু, শনাক্ত ৭০২মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা দেবে আ.লীগের উপকমিটিকাতারের সঙ্গে মিসর ও আমিরাতের ফ্লাইট চালু কাতারের সঙ্গে সরাসরি ফ্লাইট চালু করেছে সংযুক্ত আরব আমিরাত ও মিসর। প্রতিবেশী দেশটির বিরুদ্ধে আরোপ করা অবরোধ সাড়ে তিন বছর পর চলতি মাসে উঠিয়ে নিয়ে সোমবার ফ্লাইট চলাচলও শুরু করেছে। দোহাভিত্তিক আল-জাজিরা এমন খবর দিয়েছে। ২০১৭ সালের জুনে হঠাৎ করে কাতারের বিরুদ্ধে অবরোধ করে সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত ও মিসর। পরে যুক্তরাষ্ট্রের বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের চেষ্টায় গত ৫ জানুয়ারি তারা অবরোধ তুলে নিতে রাজি হয়। উপসাগরীয় ছোট্ট দেশটির বিরুদ্ধে সন্ত্রাসবাদে উসকানি ও ইরানের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সম্পর্কের অভিযোগ তোলা হয়েছিল। এরপর কাতারের সঙ্গে সব ধরনের অর্থনৈতিক ও কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করার ঘোষণা দিয়েছে তারা। এসব অভিযোগ অস্বীকার করে কাতার বলছে, অন্যায়ভাবে এই সম্পর্ক ছিন্ন করা হয়েছে। চলতি মাসের শুরুতে উপসাগরীয় সম্মেলনে অবরোধ উঠিয়ে নিতে একটি ঘোষণায় সই করে এসব দেশ। এবার তারা কাতারের সঙ্গে আকাশপথ খুলে দেওয়ার কথাও জানিয়েছে। তিন লাখের মতো মিসরীয় কাতারকে নিজেদের বাড়ি বলে মনে করেন। কিন্তু এই সংকটের সময় তারা দেশটিতে ভ্রমণ করতে পারেননি। অবরোধ উঠিয়ে নেয়ায় বেজায় খুশি হয়েছেন মিসরীয় প্রকৌশলী মোস্তফা আহমেদ। তিনি বলেন, সরাসরি ফ্লাইট চালু হওয়ায় জীবন আরও সহজ হবে। এর আগে ঘুরপথে সফর করতে তাদের বেশ ঝামেলা পোহাতে হতো।

ভিক্ষুক আর ঘুষখোরের মধ্যে পার্থক্য নেই : দুদক

নিজস্ব প্রতিবেদক

ঘুষখোরদের কোনো আত্মমর্যাদা থাকে না বলে মন্তব্য করেছেন দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ।

মঙ্গলবার (১ অক্টোবর) দুদকের প্রধান কার্যালয়ে কমিশনের উপ-সহকারী পরিচালক থেকে উপ-পরিচালক পদমর্যাদার পদোন্নতি পাওয়া ৩০ কর্মকর্তার অফিস শৃঙ্খলা, নিরাপত্তা, কাজের গোপনীয়তা এবং অফিসিয়াল আচরণ-সংক্রান্ত প্রশিক্ষণ কর্মশালায় তিনি এ মন্তব্য করেন।

দুদক চেয়ারম্যান বলেন, যারা মনে করেন ঘুষ খেলে কেউ জানবে না, তারা বোকার স্বর্গে বাস করেন। তিনি ঘুষ খাওয়া এবং ভিক্ষাবৃত্তির মধ্যে কোনো পার্থক্য নেই বলেও মন্তব্য করেন।

তিনি বলেন, দুদককে একটি স্মার্ট প্রতিষ্ঠানে পরিণত করতে হলে কর্মকর্তাদের প্রতিটি কাজ হতে হবে সুনির্দিষ্ট, পরিমাপযোগ্য, অর্জনযোগ্য, প্রাসঙ্গিক ও সময়াবদ্ধ। এর বিচ্যুতি ঘটলে কমিশনকে যোগ্য মর্যাদায় প্রতিষ্ঠিত করা কঠিন। কর্মকর্তাদের কর্মে এ বিষয়গুলোর প্রতিফলন থাকতে হবে। তাই আপনাদের আচার-আচরণ এবং কর্মসম্পাদনে সততা, স্বচ্ছতা ও জবাবদিহির কোনো বিকল্প নেই।

ইকবাল মাহমুদ বলেন, কমিশনের অনুসন্ধান ও তদন্তের তথ্য ব্যবস্থাপনায় এমন কোনো সুযোগ রাখা সমীচীন হবে না, যাতে অপরাধীরা কমিশনের নথির গতিবিধি এবং আগাম তথ্য জানতে পারে। এভাবে কমিশনের তথ্য পাচার অফিস শৃঙ্খলা পরিপন্থী।

তিনি বলেন, নিজে পরিবর্তন না হলে, পরিণত মানুষের মানসিকতা পরিবর্তন করা প্রায় অসম্ভব। তাই প্রতিষ্ঠানের স্বার্থেই নিজেকে নিজেই পরিবর্তন করুন। কমিশনের প্রতিটি কার্যক্রম টিমওয়ার্ক সংশ্লিষ্ট। তাই কর্মকর্তাদের পারস্পরিক সৌহার্দ্যপূর্ণ সম্পর্ক রাখতে হবে। তবে সবাইকে অফিস ডেকোরামও মানতে হবে। অভ্যন্তরীণ সর্বোচ্চ শৃঙ্খলা রক্ষা অফিসিয়াল আচরণের অন্যতম ভিত্তি।

এনআই/শিরোনাম বিডি

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
আরো পড়ুুন