শিরোনাম

বাঞ্ছারামপুরে ভাই-বোনকে হত্যার ঘটনায় মামা গ্রেপ্তার

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি :

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাঞ্ছারামপুরের সলিমাবাদ গ্রামে ভাই-বোনকে গলাকেটে হত্যার ঘটনায় তাদের মামা বাদল মিয়াকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

বুধবার ভোর ৫টার দিকে ঢাকার সবুজবাগ এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। বাদলের বাড়ি কুমিল্লায়। তিনি হোমনা উপজেলার খোদা দাউদপুর গ্রামের আবদুর রবের ছেলে।

নিহতদের বাবা সৌদি প্রবাসী কামাল মিয়া বাদী হয়ে হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।

এ বিষয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (নবীনগর সার্কেল) মকবুল হোসেন জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ঢাকার সবুজবাগ এলাকা থেকে ভোরে বাদল মিয়াকে গ্রেপ্তার করা হয়। বাদল প্রাথমিকভাবে হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত থাকার বিষয়টি স্বীকার করেছেন। বাদল জানিয়েছেন, দুলাভাইয়ের কাছ থেকে টাকা ধার নিয়েছিলেন তিনি। টাকা ফেরত চাওয়ায় তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। তারই জের ধরে এই হত্যাকাণ্ড।

তিনি জানান, নিহতদের বাবা বাদী হয়ে হত্যা মামলা করেছেন। ঘটনার সঙ্গে আর কেউ জড়িত কি না তা খতিয়ে দেখছি আমরা। বিভিন্ন জায়গায় অভিযান পরিচালনা করছি।

উল্লেখ্য, সোমবার বিকেল ৪টা থেকে নিখোঁজ হয় প্রবাসী কামাল মিয়ার ছেলে চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র কামরুল হাসান। তাকে খুঁজতে পরিবারের সদস্যরা এলাকায় মাইকিংও করে। সন্ধ্যার পর কামরুলের বোন অষ্টম শ্রেণি পড়ুয়া শিফা আক্তারও নিখোঁজ হয়। পরে রাত ৮টার দিকে তাদের মা হাসিনা বেগম নিজের বাড়ির পৃথক দু’টি কক্ষের খাটের নিচ থেকে রক্তাক্ত অবস্থায় তাদের মরদেহ পড়ে থাকতে দেখে প্রতিবেশীদের খবর দেন। পরে পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায়।

আরো পড়ুুন