শিরোনাম

বঙ্গবন্ধুর নাম ছবি ব্যবহার করে রাজনীতির দোকান বন্ধ করুন

নিজস্ব প্রতিবেদক: আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বঙ্গবন্ধুর নাম ও সাইনবোর্ড ব্যবহার করে যারা অপকর্ম করে তাদের বঙ্গবন্ধুর নাম নেওয়ার কোন অধিকার নেই।

তিনি আরো বলেন, যারা বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে জলাঞ্জলি দেয়, নিজেকে প্রদর্শন করবার জন্য যারা বঙ্গবন্ধুর ছবি ব্যবহার করে তারা বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক হতে পারে না।

বুধবার (৪ সেপ্টেম্বর) দুপুরে গুলিস্তানে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন ওবায়দুল কাদের। বাংলাদেশ তাঁতীলীগ এ আলোচনা সভার আয়োজন করে।

বঙ্গবন্ধুর ছবি, প্রধানমন্ত্রীর ছবি, কখনও সজীব ওয়াজেদ জয়ের ছবি ব্যবহার করে কিছু লোক রাজনীতির দোকান খুলে বসেছে মন্তব্য করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, আজকে এখানে ওখানে বঙ্গবন্ধুর নামে ছবি ব্যবহার করে যারা দোকান খুলেছেন, এসব দোকান বন্ধ করুন। আমাদের কোন স্বীকৃতি নেই।

‘বঙ্গবন্ধুর নাম ব্যবহার করে যারা ব্যবসা-বাণিজ্য করে, চাঁদাবাজি করে তারা বঙ্গবন্ধুর নামের অবমাননা করছে’ উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, আমরা যারা বঙ্গবন্ধুর সৈনিক তাদের জীবনে-কাজে-কথায় বঙ্গবন্ধুর আদর্শ অনুসরণ করতে হবে। সততা বঙ্গবন্ধুর জীবনের সবচেয়ে বড় গুণ।

বিএনপির উদ্দেশে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, বিএনপি অস্তিত্ব সংকটে ভুগছে এবং ভবিষ্যত বিপন্ন দেখে এখন আবোল-তাবোল বকছে।

তারেক জিয়া লন্ডনে বসে মিথ্যাচার করছেন জানিয়ে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, জিয়া ১৫ আগস্টের মাস্টারমাইন্ড, তারেক ২১ আগস্টের মাস্টারমাইন্ড। আগস্ট মাসে সত্যের মুখোমুখি হলে এদের গাত্রদাহ শুরু হয়। এখন আবার কাকে নাকি জাতীয়তাবাদী জাতির পিতা বানাচ্ছে। টেমস নদীর পারে বসে বাংলাদেশে ষড়যন্ত্রের রাজনীতি করছেন।

ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, ইতিহাসের মীমাংসিত বিষয় নিয়ে যারা মিথ্যাচার করে তারা ইতিহাসের আস্তাকুঁড়ে নিক্ষিপ্ত হবে। সেই প্রক্রিয়া শুরু হয়ে গেছে।

তাঁতীলীগের সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার মো. শওকত আলীর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ। আলোচনা সভা সঞ্চালনা করেন তাঁতীলীগের সাধারণ সম্পাদক খগেন্দ্র চন্দ্র দেবনাথ।

এনআই/শিরোনামবিডি

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
আরো পড়ুুন