শিরোনাম

নারায়ণগঞ্জে ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত ২২, মৃত ২

ভিন্নবার্তা, নারায়ণগঞ্জ :

নারায়ণগঞ্জে করোনাভাইরাসে একদিনে সর্বোচ্চ ২২ জন আক্রান্ত হয়েছে। দেশে প্রাণঘাতী এ ভাইরাসের হটস্পট হিসেবে পরিচিত এ জেলায় রোববার এক নারীসহ দুজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে।

রোববার সকালে ফতুল্লার দেওভোগ এলাকার মনির হোসেন (৬৫) ও রাতে ফতুল্লার পূর্ব ইসদাইর এলাকার রহিমা বেগম (৫০) মারা যান। দুজনই রাজধানীর কুয়েত মৈত্রী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন।

রোববার পর্যন্ত জেলায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ১০৭ জন।

নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের প্যানেল মেয়র আফসানা আফরোজ বিভা জানান, ১২ এপ্রিল করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মনির হোসেন নামে একজন ঢাকার কুয়েত মৈত্রী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন মারা যান।

মনির হোসেন দেওভোগ এলাকার বাসিন্দা। তিনি গত ৯ এপ্রিল অসুস্থ হলে তাকে ঢাকা মেডিকেলে নেয়া হয়। সেখানকার ডাক্তাররা তাকে কুয়েত মৈত্রীতে পাঠান।

সেখানে নমুনা সংগ্রহের পর তার রিপোর্ট পজিটিভ আসে। রোববার দুপুরে পরিবার জানতে পারে তিনি মারা গেছেন। এখন পরিবারের সবাই যেহেতু তার সেবা করেছে, তাই তাদের টেস্টের ব্যবস্থা করছি। মৃতদেহ ইতিমধ্যে রাজধানীর খিলগাঁওয়ে দাফন করা হয়েছে।

রোববার রাতে মারা যান পূর্ব ইসদাইর এলাকার রহিমা বেগম। তিনি ওই এলাকার সুলতান মিয়ার স্ত্রী।

রহিমার মেজ ছেলে রিপন জানান, শনিবার তার মায়ের প্রেসার ও ডায়াবেটিক সমস্যা বেড়ে যায়। পরে রোববার ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয় রহিমা বেগমকে।

করোনা উপসর্গ থাকায় সেখান থেকে পাঠানো হয় কুয়েত মৈত্রী হাসপাতালে। সেখানেই রোববার রাতে মারা যান। পরে নমুনা সংগ্রহের পর করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসে।

রিপন আরও জানান, হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে– তারা নিজেরাই লাশ দাফন করবে। আর সোমবার সকালে এসে তাদের বাড়ির সবার নমুনা সংগ্রহ করবে। এ বাড়িতে রহিমা বেগমের তিন ছেলে, স্বামী ও ভাড়াটিয়াসহ ১১ সদস্য রয়েছে।

ফতুল্লা মডেল থানার ওসি আসলাম হোসেন জানান, পরিবারের সদস্যদের দূরত্ব বজায় রেখে হোম কোয়ারেন্টিনে থাকতে বলা হয়েছে। সোমবার নমুনা সংগ্রহ করা হবে পরিবারের অন্য সদস্যদের।
ভিন্নবার্তা ডটকম/এসএস

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
আরো পড়ুুন