শিরোনাম

নদী দূষণকারীদের তালিকা প্রকাশ করতে হবে

ভিন্নবার্তা, ঢাকা :

যারা নদী দখল ও দূষণ করছে তারা অপরাধী। তাই তাদের তালিকা করে তা জনসম্মুখে প্রকাশ করতে হবে। তারপর দখল ও দূষণকারীদের নদী আদালত গঠনের মাধ্যমে বিচারের আওতায় আনতে হবে। শনিবার জাতীয় প্রেসক্লাব জহুর হোসেন চৌধুরী হল রুমে বাংলাদেশ নদী বাঁচাও আন্দোলনের উদ্যোগে আন্তর্জাতিক নদীকৃত্য দিবস উপলক্ষে “দূষণ ও দখল মুক্ত নদী প্রবাহ’ শীর্ষক এক সেমিনার বক্তারা এ কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, নৌ-পরিবহন মন্ত্রণালয়ের মাননীয় প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহ্মুদ চৌধুরী এমপি। এসময় তিনি বলেন, একসময় নদী দখলকারীদের ভয়ে নদী আন্দোলনকারীদের পালিয়ে বেড়াতে হতো, কিন্তু এখন দখলকারীরা পালিয়ে বেড়ায়। নদী শুধু নদী নয়, সমগ্র বাংলাদেশের উন্নয়নের সাথে নদী জড়িত। নদী গবেষণার বিষয়ে আমাদের দেশ দুর্বল উল্লেখ করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, যারা গবেষণা করছেন, তারাও ঠিকমতো পৃষ্ঠপোষকতা পাননা। তাই সরকার গবেষণার সঙ্গে যুক্তদের সহায়তা করবে। যেন দেশের নদীগুলো রক্ষার মাধ্যমে সঠিক কাজে ব্যবহার করা যায়।
সভাপতির বক্তব্যে কেন্দ্রীয় সভাপতি অধ্যাপক আনোয়ার সাদত বলেন, নদী আমাদের অস্তিত্ব তাকে যেকোন মূল্যে রক্ষা করতে হবে। নদীর পাড়ের মানুষদের সাথে নদী বিষেষজ্ঞদের সুসম্পর্ক গড়ে তুলতে হবে এবং নদী রক্ষায় তাদের মতামত নিতে হবে। নদী দূষণকারীদেরও তালিকা প্রস্তুত করে তারা প্রকাশ করতে হবে।

সাধারণ সম্পাদক এড. আনোয়ার হোসেন বলেন দখল ও দূষণকারীদের বিচারের আওতায় আনতে হবে। সেমিনারে প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বিশিষ্ট নদী গবেষক মাহবুব সিদ্দিকী বাংলাদেশের নদ-নদীর প্রকৃত সংখ্যা বিষয়ক এবং বিশিষ্ট নদী ও পানী প্রকৌশলী ড. প্রকৌশলী মোঃ লুৎফর রহমান নদী ভাঙ্গন প্রতিরোধ বিষয়ক প্রবন্ধ। প্রবন্ধের উপর আলোচনায় রিভারাইন পিপলের মহাসচিব শেখ রোকন বলেন ভাঙ্গন রোধের প্রথাগত পদ্ধতির সাথে প্রবন্ধের মিল রয়েছে যা সত্যিই টেকসই দেশীয় প্রযুক্তি।

সেমিনারে আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন বুড়িগঙ্গা বাচাঁও আন্দোলনের আহবায়ক মিহির বিশ্বাস বাংলাদেশ নদী বাঁচাও আন্দোলনের সহ-সভাপতি এডভোকেট খন্দকার আমিনুল হক টুটুল, যুগ্ম সম্পাদক ড. বোরহান উদ্দিন অরণ্য, মোঃ তাজুল ইসলাম,, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. বশির উদ্দিন, সাংবাদিক আনিছুর রহমান খান ও সাংবাদিক মহসীনুল করিম লেবু, কেন্দ্রীয় জীববৈচিত্র বিষয়ক সম্পাদক হাছিবুর রহমান,পুরান ঢাকার সভাপতি মো. শহিদুল্লাহ, প্রফেসর আমিনুল ইসলাম লিন্টু, নারীনেত্রী শাহ্নাজ পারভীন, নদীযোদ্ধা মিজানুর রহমান। সেমিনার শেষে আনিছুর রহমান খানকে সভাপতি ও মহসীনুল করিম লেবুকে সাধারণ সম্পাদক করে ঢাকা মহানগর কমিটি ঘোষণা করা হয়।

ভিন্নবার্তা/এমএসআই

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
আরো পড়ুুন