1. [email protected] : admin : admin
  2. [email protected] : Rumana Jaman : Rumana Jaman
  3. [email protected] : Saidul Islam : Saidul Islam
  4. [email protected] : admin : jashim sarkar
  5. [email protected] : admin_naim :
  6. [email protected] : admin_pial :

টিপু-প্রীতি হত্যা: গ্রেপ্তার ৫, অস্ত্র-মোটরসাইকেল উদ্ধার

ভিন্নবার্তা প্রতিবেদক
  • প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ১৬ আগস্ট, ২০২২ ৩:৪৭ pm

রাজধানীর শাহজাহানপুরে আওয়ামী লীগ নেতা মো. জাহিদুল ইসলাম টিপু ও সামিয়া আফরান জামাল প্রীতি হত্যাকাণ্ডে আরো ৫ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। উদ্ধার করা হয়েছে হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত পিস্তল, ম্যাগাজিন ও মোটর সাইকেল।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- শামীম হোসাইন ওরফে মোল্লা শামীম, তৌফিক হাসান ওরফে বাবু, সুমন হোসেন ওরফে সুমন, এহতেশাম উদ্দিন চৌধূরী ওরফে অপু ও শরিফুল ইসলাম ওরফে হৃদয়। সোমবার (১৫ আগস্ট) যশোরের বেনাপোল এলাকা ও রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় ধারাবাহিক অভিযানে তাদেরকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ নিয়ে চাঞ্চল্যকর এ হত্যাকাণ্ডে মোট ২৭ জন গ্রেপ্তার করা হলো।

আজ মঙ্গলবার (১৫ আগস্ট) ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে ডিবির প্রধান ও অতিরিক্ত কমিশনার হারুন অর রশিদ বলেন, উক্ত হত্যাকাণ্ডে সরাসরি অংশগ্রহণকারী অন্যতম আসামী মোল্লা শামীমকে গ্রেপ্তারসহ হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত অস্ত্র, গুলি ও মোটরসাইকেল উদ্ধারের জন্য বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালনা করে ডিবি।

এক পর্যায়ে গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে জানা যায় যে, মোল্লা শামীম সীমান্ত পাড়ি দিয়ে দেশ ত্যাগ করার উদ্দেশ্যে যশোর বেনাপোল এলাকায় অবস্থান করছে। পরে তার সঠিক অবস্থান নিশ্চিত হয়ে গতকাল সোমাবার রাত ৯টার দিকে যশোর বেনাপোল সীমান্ত থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। এরপর মোল্লা শামীমের দেয়া তথ্য অনুযায়ী তৌফিক হাসান বাবু, সুমন ও মোঃ এহেতেশাম উদ্দিন চৌধূরী অপুকে রাজধানীর বিভিন্ন স্থান হতে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃতদের দেওয়া তথ্য মোতাবেক দক্ষিণ গোড়ান এলাকা হতে শরিফুল ইসলাম ওরফে হৃদয়কে হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত ২ টি বিদেশি পিস্তল, ৮ রাউন্ড গুলি ও ৩ টি ম্যাগাজিনসহ গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত তৌফিক হাসানের তথ্য মতে হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত মোটর সাইকেলটি দক্ষিণ গোড়ান হতে উদ্ধার করা হয়। উক্ত ঘটনা সংক্রান্তে পৃথক অস্ত্র মামলা প্রক্রিয়াধীন।

গত ২৪ মার্চ রাতে শাহজাহানপুর থানাধীন আমতলা এলাকায় মতিঝিল থানা আওয়ামীলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মো. জাহিদুল ইসলাম টিপু এজিবি কলোনী হতে নিজ বাসায় ফেরত যাওয়ার পথে অজ্ঞাতনামা অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী পূর্ব পরিকল্পিতভাবে হত্যার উদ্দেশ্যে আগ্নেয়াস্ত্র দিয়ে গুলি করে গুরুতর জখম করে। এ সময় পাশে থাকা রিক্সারোহী সামিয়া আফরান জামাল প্রীতি গুলিবিদ্ধ হয়। তাদেরকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক জাহিদুল ইসলাম টিপু ও রিক্সারোহী প্রীতিকে মৃত ঘোষণা করেন। উক্ত ঘটনায় শাহজাহানপুর থানায় হত্যা মামলা রুজু হয়।

গোয়েন্দা (মতিঝিল) বিভাগ উক্ত ঘটনার তদন্ত শুরু করে। তদন্তকালে এ মামলার মূল শুটার মাসুম মোহাম্মদ ওরফে আকাশকে গ্রেপ্তার করা হয়। মাসুম মোহাম্মদ ওরফে আকাশকে জিজ্ঞাসাবাদে ও তার জবানন্দিতে হত্যাকান্ডের মূল সমন্বয়ক হিসাবে সুমন শিকদার ওরফে মুসা ও পলাতক শীর্ষ সন্ত্রাসী জিসান আহম্মেদ মন্টি ও জাফর আহম্মেদ মানিক ওরফে ফ্রিডম মানিকের সংশ্লিষ্ঠতার কথা প্রকাশ করে। পরবর্তীতে ডিবি মতিঝিল বিভাগের মাধ্যমে মুসাকে ইন্টারপোলের সহায়তায় ওমান থেকে দেশে ফিরিয়ে আনা হয়।
ভিন্নবার্তা ডটকম/এন



আরো




মাসিক আর্কাইভ