1. admin-1@vinnabarta.com : admin : admin
  2. admin-2@vinnabarta.com : Rumana Jaman : Rumana Jaman
  3. admin-3@vinnabarta.com : Saidul Islam : Saidul Islam
  4. bddesignhost@gmail.com : admin : jashim sarkar
  5. newspost2@vinnabarta.com : ebrahim-News :
  6. vinnabarta@gmail.com : admin_naim :
  7. admin_pial@vinnabarta.com : admin_pial :
মির্জা আব্বাস

জনগণের মধ্যে ‘ঈদের আনন্দ নেই’

ভিন্নবার্তা প্রতিবেদক
  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ১৭ জুন, ২০২৪ ৩:৫৬ pm

জনগণের মধ্যে ‘ঈদের আনন্দ নেই’। তার ভাষায়, ঈদ বলতে যা বোঝায়, সেই আনন্দের ঈদ গত ‘দেড় যুগ ধরেই’ তাদের হয় না।

সোমবার ঈদের নামাজ শেষে বেলা সাড়ে ১১টায় শেরেবাংলা নগরে জিয়াউর রহমানের কবর জিয়ারতে গিয়ে সাংবাদিকদের সামনে কথা বলছিলেন মির্জা আব্বাস।

তিনি বলেন, ‘আজকে ঈদুল আজহা পালিত হচ্ছে, এখন থেকে ১৫ বছর আগে যদি আমরা ফিরে যাই অর্থাৎ দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার সরকারের সময় যদি আমরা ফিরে যাই… তারও একটু আগে যদি ফিরে যাই আজকের যে ঈদ, আজকের ঈদের যে আনন্দ জনগনের মধ্যে নেই। ঈদ আবরী শব্দ… এর বাংলা অর্থ হলো খুশি। এই খুশি এটাকে যে উপভোগ করা এর মনমানসিকতা এটা কিন্তু বাংলাদেশের মানুষের মধ্যে নেই।

সকলের বেদনা ক্লিষ্ট মুখ, বেদনা-বিধুর চেহারা… অনেক কষ্ট করে তারা কোরবানি দিচ্ছে। আমার বাড়ির(শাহজাহানপুর) পাশে কোরবানীর পশুর হাট ছিলো। দেখলাম বেশ কিছু বেপারী তাদের গরু বিক্রি করতে পারেনি। অর্থাৎ টাকার অভাব লক্ষ্য করা গেছে।

মির্জা আব্বাস বলেন, ‘বাংলাদেশের আজকে যে কষ্ট এটা অবৈধ সরকারের জন্য, জনগনেরে আজকে যে কষ্ট এটা একটা অনৈতিক বিনাভোটের সরকারের জন্য। যদি নির্বাচিত সরকার থাকতো তাহলে জনগনের এই কষ্ট হতো না। এটা প্রমাণিত ….যখন নির্বাচিত সরকার ছিলো তখন কি অবস্থা ছিলো আর আজকের কি অবস্থা।

দলের হাজার নেতা-কর্মী কারাবন্দি অবস্থায় আছে তাদের প্রতিও সহমর্মিতা প্রকাশ করেন তিনি।

জনগণ অক্টোপাসের মতো বন্দি অবস্থায়’

মির্জা আব্বাস বলেন, ‘ আজকে দেশের মানুষ চারিদিক থেকে অক্টোপাসের মতো বন্দি অবস্থায় আছে । কি রাজনৈতিক, কি অর্থনৈতিক, কি সামাজিক, কি ভৌগলিক। আমি যদি ভৌগলিক অবস্থার কথা বলি আমরা কিন্তু ভালো অবস্থানে নাই, শান্তিতে কিন্তু আমরা নাই।’

‘আপনি দেখেন সেন্ট মার্টিন একটা দ্বীপ নিয়ে যে দ্বীপ একেবারেই বাংলাদেশের অভ্যন্তরে… সেই দ্বীপে আজকে খাদ্য সংকট পড়েছে। একদিকে তো অভাব যদি আমরা নাও বলি… তাহলে সেই দ্বীপ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। ওখানে খাদ্য সরবারহ করা যাচ্ছে না। কার ভয়ে? মিয়ানমার সৈন্যবাহিনীর ভয়ে।’

তিনি বলেন, ‘অথচ ১৯৭৮-৭৯‘র দিকে সালের দিকে এই মিয়ানমার নতজানু হয়ে বাংলাদেশের তৎকালীন রাষ্ট্রপতি (জিয়াউর রহমান) তার কাছ থেকে মাফ চেয়ে বিদায় নিয়েছিলো। সেই মিয়ানমার আজকে কতটুকু উদ্যোত্ত হয়ে গেছে যে, তারা আমাদের রাষ্ট্রকে রক্তচক্ষু দেখায়।’

‘ কারণ এদেশে একটা অবৈধ সরকার, অনির্বাচিত সরকার যাদের দেশে ভেতরে ও বাইরে কারোই সমর্থন এই সরকারের প্রতি নাই। এই কারণেই আজকে তারা(মিয়ানমার) সুযোগ নিচ্ছে।আর যদি বলি, আরও বহু দেশ আছে তারা বাংলাদেশের ওপরে খবরদারি করছে। বাংলাদেশের সার্বভৌমত্ব আজকে অন্যের হাতে বিকিয়ে দিয়ে এই সরকার নিজে কোনো সিদ্ধান্ত নিতে পারছে না।

অসুস্থ খালেদা জিয়ার জন্য দোয়া প্রা্র্থনা’

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থার কথা উল্লেখ করে মির্জা আব্বাস বলেন, ‘‘ দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া অসুস্থ। চিকিৎসকদের নিবিড় পর্যবেক্ষনে আছেন; আল্লাহ জানেন কি অবস্থা। এই মুহুর্তে দেশনেত্রীর আরোগ্য কামনায় আমরা দেশবাসীর কাছে দোয়া চাই। আমাদের নেতা তারেক রহমান ও তার সহধর্মিনী ডা. জোবায়দা রহমানকে মিথ্যা ভুয়া মামলায় সাজা দিয়ে তাদেরকে দেশে আসতে দেয়া হচ্ছে না তাদের জন্য আমরা আল্লাহ কাছে দোয়া প্রার্থনা করেছি।

‘এদেশের মানুষ আজকে কথা বলতে পারে না, কথা বলার অধিকার নাই… এই অবস্থা থেকে উত্তরণের জন্য জন্য এই ঈদুল আজহার দিনে দেশবাসীকে সমস্ত ভয়-ভীতিকে কোরবানি দিয়ে এই সরকারকে অবশ্যই মোকাবিলা করার জন্য তওফিক আল্লাহতালা দিন …এই দোয়া আমরা করছি।আমরা আজকে এখানে ফাতেহা পাঠ করে জিয়াউর রহমানের আত্মার মাগফেরাত কামনা করেছি।

সরকার বলছে সেন্ট মার্টিন নিয়ে একটি মহল গুজব ছড়াচ্ছে এই বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে মির্জা আব্বাস বলেন, ‘‘ পত্রিকায় ছবিতে দেখা গেছে মিয়ারমার সেনাবাহিনীর সশ্বস্ত্র তিনটি জাহাজ আমাদের ভুখন্ডে অবস্থান করছে। এরপরও এটা যদি তারা(সরকার) বলে এই চাপাবাজী তো সারাজীবন করেছে। মিথ্যা কথা হলো তাদের একটা পূঁজি… এই পূঁজি বিক্রি করেই তারা এই পর্যন্ত আছে।

এখনো বলে যে দেশে অভাব নাই…. আমি আশ্চর্য্ হই এই কথা শুনে। হ্যাঁ স্বীকার করতে অসুবিধাটা কোথায়? হ্যাঁ অভাবে পড়ে গেছি স্বীকার করতে অসুবিধা কি

দলের কমিটি পূর্ণগঠন চলমান প্রক্রিয়া’

সম্প্রতি দলের কেন্দ্রীয় কমিটির নেতৃবৃন্দকে বিভিন্ন পদে পদায়ন কি বিগত আন্দোলনের ব্যর্থতার কারণে কিনা জানতে চাইলে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস বলেন, ‘‘ মোটেও না… এসব বাজে কথা। আমাদের দলের নিয়মতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় বরাবর যা হয়ে আসছে, চলমান একটা প্রক্রিয়ার মধ্যে এটা আছে।

এখন এসব কথা বলে কিছু কিছু লোক ফয়দা লুটতে চাচ্ছে… আমরা এর নিন্দা করি যারা বলে এসব কথা। এটা ঠিক না।

খালেদা জিয়ার ‘ঈদ মোবারক’

মির্জা আব্বাস সাংবাদিকদের বলেন, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া, দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান আপনাদের মাধ্যমে দেশবাসীকে, জনগণকে ঈদের শুভেচ্ছা, ঈদ মোবারক জানিয়েছেন। তিনি আপনাদের মাধ্যমে দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন।

সকাল সাড়ে ১১টায় দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ও নজরুল ইসলাম খান দলের কেন্দ্রীয় নেতা আহমেদ আজম খান, জয়নুল আবদিন ফারুক, আবদুস সালাম, রুহুল কবির রিজভী, হাবিব উন নবী খান সোহেল, সুলতান সালাউদ্দিন টুকু, রফিকুল ইসলাম, আমিনুল ইসলাম, শাহ নেসারুল হক প্রমূখকে নিয়ে শেরে বাংলা নগরে জিয়াউর রহমানের কবরে আসেন। সেখানে তারা ফাতেহা পাঠ করে দলের প্রতিষ্ঠাতার আত্মার মাগফেরাত কামনায় মোনাজাতে করেন।

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ঈদের দিন দলীয় কর্মসূচি শেষ করে জিয়াউর রহমানের কবর জিয়ারত করতেন। ২০১৮ সালে দুর্নীতি মামলায় দণ্ডিত হয়ে তিনি কারাগারে গেলে দলের নেতারা সেই রেওয়াজ ধরে রাখেন।

মহানগর উত্তরের নেতা আমিনুল হক, যুব দলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোনায়েম মুন্না স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক রাজিব আহসান, ছাত্র দল সভাপতি রাকিবুল ইসলাম রাকিব, মতস্যজীবী দলের সদস্য সচিব আবদুর রহিম, জাসাসের সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন রোকনসহ কয়েকটি অঙ্গসংগঠনের নেতা-কর্মীরাও ঈদের দিন তাদের প্রয়াত নেতার কবরে শ্রদ্ধা নিবেদন করে।

‌ভিন্নবার্তা ডটকম/আর‌জে/এন



আরো




মাসিক আর্কাইভ