শিরোনাম

চিকিৎসা দিতে দেরি, ডাক্তারকে চর মারলেন রোগী!

উপজেলা প্রতিবেদক, সাভার

সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা সেবা প্রদানে দেরি হওয়ায় হাসপাতালের কর্তব্যরত এক চিকিৎসককে রেগে গিয়ে চর মারার অভিযোগ উঠেছে এক রোগীর বিরুদ্ধে। তবে বিষয়টি হাসপাতাল কতৃপক্ষের সমঝোতায় মিমাংসা করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

বুধবার দুপুরে সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এ ঘটনা ঘটে। এসময় হাসপাতালে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়লে স্বাভাবিক কার্যক্রম ব্যাহত হয়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, সাভার মডেল থানার এএসআই মাহবুবুর রহমানের আত্মীয় পরিচয়দানকারী এক নারী সদস্য বুধবার দুপুরে সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আইটডোরে চিকিৎসা নিতে আসেন। এসময় দেখতে দেরি হওয়ায় ওই নারীর সঙ্গে সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডা. রওশন আরার বাকবিতন্ডা হয়। এক পর্যায়ে ওই নারী রোগি উত্তেজিত হয়ে ডা. রওশন আরার গালে থাপ্পর মেরে দৌঁড়ে পালানোর চেষ্টা করেন। এ সময় ডাক্তারের চিৎকারের অন্য আউটডোরে চিকিৎসা নিতে আসা রোগি ও হাসপাতালের কর্মচারীরা দৌঁড়ে গিয়ে তাকে ধরে ফেলেন। পরে পুলিশ এসে ওই নারীকে আটক করে নিয়ে যায়।

এব্যাপারে সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার নুসরাত জাহান জানান, এটা নিউজ করার মত কোন ঘটনা না। ডাক্তার ও রোগীর মধ্যে একটা তুচ্ছ বিষয় নিয়ে ভুল বোঝাবুঝি হয়েছে মাত্র। তবে সকলের উপস্থিতে বিষয়টি মিমাংশাও হয়ে গেছে। তবে চিকিৎসা নিতে আসা নারীর নাম জানতে চাইলে তিনি অপরাগতা প্রকাশ করেন।

সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মোহাম্মদ সায়েমুল হক জানান, ভুলবশত একটি ঘটনা ঘটে গেছে। বিষয়টি আমরা বসে মিমাংশা করেছি। এ বিষয়ে নিউজ না করারও অনুরোধ জানান তিনি।

সাভার মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এফএম সায়েদ জানান, বিষয়টি থানা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে মিমাংশা হওয়ায় ও কোন লিখিত অভিযোগ না পাওয়ায় এঘটনায় কাউকে আটক করা হয়নি।

আইআই/শিরোনাম বিডি

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
আরো পড়ুুন