1. [email protected] : admin : jashim sarkar
  2. [email protected] : admin_naim :
  3. [email protected] : admin_pial :
  4. [email protected] : admin : admin
  5. [email protected] : Rumana Jaman : Rumana Jaman
  6. [email protected] : Saidul Islam : Saidul Islam
চলে গেলেন সাদেক হোসেন খোকা |ভিন্নবার্তা

চলে গেলেন সাদেক হোসেন খোকা

vinnabarta.com
  • প্রকাশ : সোমবার, ৪ নভেম্বর, ২০১৯, ০৩:২০ অপরাহ্ন

ঢাকা সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র ও বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান সাদেক হোসেন খোকা নিউইয়র্কে একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।

বাংলাদেশ সময় সোমবার দুপুর দু্ইটার ম্যানহাটনের মেমোরিয়াল স্লোন ক্যাটারিং ক্যানসার সেন্টারে তার মৃত্যু হয় বলে নিশ্চিত করেন বিএনপি চেয়ারপারসনের প্রেস উইং সদস্য শায়রুল কবির খান।

হোসেন খোকার মৃত্যুতে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান এবং মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর শোক প্রকাশ করেছেন বলেও জানান শায়রুল।

ঢাকার সাবেক মেয়র খোকা ২০১৪ সালের ১৪ মে চিকিৎসার জন্য যুক্তরাষ্ট্র যান। চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী নিউইয়র্ক সিটির কুইন্সের একটি বাসায় থেকে চিকিৎসা চালিয়ে যাচ্ছিলেন তিনি।

সপ্তাহ তিনেক আগে মুখে ঘা দেখা দিলে মেমোরিয়াল স্লোন ক্যাটারিং ক্যানসার সেন্টারে তাকে ভর্তি করা হয়।

লাগাতার ওষুধ সেবনে খোকার দেহে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছিল বলে জানিয়েছিল চিকিৎসকরা। হাসপাতালে ভর্তির নয় দিন পর তার শ্বাসনালী থেকে টিউমার অপসারণ করা হয়। ২৮ অক্টোবর স্বাস্থ্যের আরও অবনতি হলে তাকে নেওয়া হয় নিবিড় পরিচর্যা (আইসিইউ) কেন্দ্রে। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ না ফেরার দেশে চলে যান অবিভক্ত ঢাকা সিটির সাবেক মেয়র খোকা।

খোকাকে কোথায় দাফন করা হবে তা কিছু জানা যায়নি। মৃত্যুর আগে ঢাকার জুরাইনে বাবা-মার কবরের পাশে দাফনের জন্য খোকা তার ইচ্ছার কথা পরিবারকে জানিয়ে গেলেও পাসপোর্ট জটিলতার কারণে তার লাশ দেশে আনা হবে কিনা তা নিয়ে এখনো অনিশ্চয়তা কাটেনি।

নিউইয়র্ক যাওয়ার পর ২০১৭ সালে খোকা ও তার স্ত্রী ইসমত হোসেনের পাসপোর্টের মেয়াদ শেষ হয়ে যায়। পরে তারা নিউইয়র্ক কনস্যুলেটে নতুন পাসপোর্টের জন্য আবেদন করেও কনস্যুলেট থেকে কোনো সদুত্তর পাননি বলে খোকার পরিবার দাবি করে। তাই যুক্তরাষ্ট্রে মৃত্যুর পর তার লাশ দেশে আনা নিয়ে এখনো জটিলতা কাটেনি।

নিউইয়র্কে খোকার লাশের কাছে আছেন তার স্ত্রী ইসমত হোসেন, ছেলে ইশরাক হোসেন ও ইশফাক এবং মেয়ে শারিকাসহ বেশ কিছু স্বজন।

মাওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানীর নেতৃত্বাধীন ন্যাপের রাজনীতির মাধ্যমে রাজনৈতিক জীবন শুরু করেন খোকা। এরপর যুক্ত হন বিএনপির রাজনীতির সঙ্গে। ঢাকা মহানগর বিএনপির সভাপতি সাদেক হোসেন খোকার ক্রীড়া সংগঠন হিসেবেও ক্রীড়াঙ্গনে ব্যাপক পরিচিত রয়েছে।

১৯৯১, ১৯৯৬ ও ২০০১ সালে ঢাকার সূত্রাপুর-কোতয়ালি আসন থেকে তিনি সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। সাদেক হোসেন খোকা অবিভক্ত ঢাকা সিটি করপোরেশনের নির্বাচিত মেয়র এবং খালেদা জিয়ার মন্ত্রিসভার মৎস্য ও পশু সম্পদমন্ত্রী ছিলেন।

চিকিৎসার জন্য যুক্তরাষ্ট্রে যাওয়ার পর খোকার বিরুদ্ধে দেশে কয়েকটি দুর্নীতি মামলা হয় এবং কয়েকটিতে সাজাও দেয় আদালত।

আইআই/শিরোনাম বিডি

আরো পড়ুন

মাসিক আর্কাইভ

© All rights reserved © 2021 vinnabarta.com
Customized By Design Host BD