1. naim@vinnabarta.com : admin_naim :
  2. admin_pial@vinnabarta.com : admin_pial :
  3. admin-1@vinnabarta.com : admin : admin
  4. admin-2@vinnabarta.com : Rumana Jaman : Rumana Jaman
  5. admin-3@vinnabarta.com : Saidul Islam : Saidul Islam
  6. jashimsarkar1980@gmail.com : admin : jashim sarkar
  7. admin@admin.com : happy :
চবিতে যৌন নিপীড়নের ঘটনায় গ্রেপ্তারকৃতরা কারাগারে - |ভিন্নবার্তা




চবিতে যৌন নিপীড়নের ঘটনায় গ্রেপ্তারকৃতরা কারাগারে

ভিন্নবার্তা প্রতিবেদক
  • প্রকাশের সময় : রবিবার, ২৪ জুলাই, ২০২২ ১২:৪৪ pm

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) যৌন নিপীড়নের ঘটনায় গ্রেপ্তারকৃত পাঁচজনের মধ্যে চারজনকে ইতোমধ্যে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। পরবর্তীতে গ্রেপ্তার সাইফুলকে আজ শনিবার (২৫ জুলাই) কারাগারে পাঠানো হবে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন হাটহাজারী থানার অফিসার ইনচার্জ রুহুল আমিন।

আজ শনিবার আদালতে তাদের রিমান্ড এর আবেদন করা হবে বলে অবহিত করেন তিনি।

চারজন হল, বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের মো.আজিম, নৃ-বিজ্ঞান বিভাগ দ্বিতীয় বর্ষের নুরুল আবছার বাবু, হাটহাজারী সরকারি কলেজ সমাজবিজ্ঞান বিভাগ প্রথম বর্ষের ছাত্র নুর হোসেন শাওন ও দ্বিতীয় বর্ষের মাসুদ রানা।

এদিকে, অভিযুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই ছাত্র আজিম হোসেন ও আবসার বাবুকে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আজীবন বহিষ্কার করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। এছাড়া হাটহাজারী কলেজের তিন ছাত্রকে বহিষ্কার করা হবে বলে জানিয়েছেন কলেজটির অধ্যক্ষ গুল মোহাম্মদ। শনিবার রাতে তিনি এ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

অন্যদিকে, বুধবার (২০ জুলাই) রাতে আন্দোলনকারী ছাত্রীরা ৪ দফা দাবি পেশ করে। চার কর্মদিবসের মধ্যে তা পূরণ করা হবে বলে আশ্বাস দেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার এস এম মনিরুল হাসান। দাবিগুলো ছিল- ছাত্রীদের হলে প্রবেশের ক্ষেত্রে কোন সময়সীমা না রাখা, যৌন নিপীড়ন সেল বাতিল করে নতুন করে সেল গঠন করা, আগামী ৪ কর্মদিবসের মধ্যে চলমান ঘটনাগুলোর বিচার ও সুষ্ঠু সমাধান করা ও সমাধানে ব্যর্থ হলে প্রক্টরিয়াল বডির পদত্যাগ করা। এখানকার বাকি দাবিগুলো পূরণ করার জন্য গত শুক্রবার ও শনিবার রাতে গান গেয়ে ভিন্নধর্মী আন্দোলন করেছে শিক্ষার্থীরা।

গত ১৭ জুলাই রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের বোটানিক্যাল গার্ডেন এলাকায় ৬ জন যুবকের হাতে যৌন নীপিড়নের শিকার হন এক ছাত্রী। ওই সময় তার সাথে থাকা বন্ধুকেও মারধর করে তাদের মোবাইল ছিনিয়ে নেওয়া হয়। পরে এ বিষয়ে ভুক্তভোগী ছাত্রী প্রক্টর বরাবর লিখিত অভিযোগ দিলে পাঁচ সদস্যবিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। এরপর এ বিষয়ে একটি মামলা করা হয়।
ভিন্নবার্তা ডটকম/এন



আরো




মাসিক আর্কাইভ