শিরোনাম

ঘূর্ণিঝড় বুলবুল: ভোলায় এখনও নিখোঁজ ১৩ জেলে

ভোলা প্রতিবেদক

ভোলায় ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুলে’র প্রভাবে মেঘনা নদীতে ২৪ জেলে নিয়ে ডুবে যাওয়া মাছ ধরা ট্রলারের নিখোঁজ ১৩ জেলের সন্ধান এখনো পাওয়া যায়নি। নিখোঁজ জেলেদের বাড়ি চরফ্যাশন উপজেলায়।

রবিবার দুপুরে চরফ্যাশনের আব্দুল্লাহপুর ইউনিয়নের তোফায়েল মাঝির একটি মাছ ধরার ট্রলার ২৪ জেলে নিয়ে চাঁদপুর থেকে মাছ বিক্রি করে চরফ্যাশনে ফিরছিল। পথে মেঘনা নদীর ভোলা-বরিশাল সীমান্তবর্তী এলাকার রোকনদীতে ট্রলারটি ডুবে যাওয়া। পরে ট্রলারে থাকা ১০ জেলেকে জীবিত ও এক জেলের মৃতদেহ উদ্ধার করে কোস্টগার্ড। এরপর থেকে বাকি ১৩ জেলের সন্ধানে নদীতে অভিযান চালায় কোস্টগার্ড, নৌপুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস সদস্যরা।

ভোলায় ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরিদল না থাকায় রবিবারই বরিশাল থেকে ডুবুরি দল আনা হয়। তারা মেঘনা নদীর ভোলা-বরিশাল সীমান্তবর্তী এলাকা রোকনদীসহ ভোলার ইলিশা ও রাজপুর পয়েন্টে তাদের উদ্ধারে অভিযান চালায়। সোমবার দুপুর আড়াইটা পর্যন্ত নিখোঁজ জেলেদের কোনো সন্ধান পাওয়া যায়নি বলে নিশ্চিত করেছে নৌপুলিশ ও কোস্টগার্ড।

ভোলার ইলিশা নৌথানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রতন চন্দ্র শীল জানান, রবিবার দুপুরে ট্রলারটি ডুবে যাওয়ার পর মাঝিসহ ১০ জেলেকে জীবিত উদ্ধার করা হয়। এবং মোরশেদ নামের আরও এক জেলের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। কিন্তু ট্রলারটিতে থাকা বাকি জেলেদের উদ্ধারে রবিবার থেকেই বিরতিহীনভাবে কোস্টগার্ড, নৌপুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা উদ্ধার অভিযান চালিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু তাদের কোনো সন্ধান পাওয়া যায়নি। সম্ভবত প্রবল জোয়ারের স্রোতে তাদেরকে অন্য কোথাও নিয়ে গেছে। তারপরও আমাদের উদ্ধার অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

কোস্টাগার্ড দক্ষিণ জোনের স্টাফ অফিসার (অপারেশন) লে. মাহবুবুল আলম জানান, নিখোঁজ লেদের উদ্ধারে কোস্টগার্ডের তিন টিম মেঘনা নদীর ভোলা, মেহেন্দীগঞ্জ ও কালিগঞ্জ অভিযান চালাচ্ছে। তবে এখনো তাদের কোনো সন্ধান পাওয়া যায়নি।

আইআই/শিরোনাম বিডি

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
আরো পড়ুুন