1. admin-1@vinnabarta.com : admin : admin
  2. admin-2@vinnabarta.com : Rumana Jaman : Rumana Jaman
  3. admin-3@vinnabarta.com : Saidul Islam : Saidul Islam
  4. bddesignhost@gmail.com : admin : jashim sarkar
  5. vinnabarta@gmail.com : admin_naim :
  6. admin_pial@vinnabarta.com : admin_pial :

ক্যামেরুন-সার্বিয়া ৬ গোলের জমজমাট লড়াই ড্র

ভিন্নবার্তা প্রতিবেদক
  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ২৮ নভেম্বর, ২০২২ ৭:০৪ pm

ফুটবল গোলের খেলা। গোলই বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় এই খেলাটির সৌন্দর্য্য। সোমবার ক্যামেরুন ও সার্বিয়ার ম্যাচটি যারা দেখেছেন তারা হতাশ হননি। একটি দুটি নয়, ৬ টি গোল দেখেছে দর্শক। যদিও এই ম্যাচে কেউ জেতেনি; ৬ গোলের ম্যাচটি শেষ হয়েছে ড্রয়ে।

সোমবার কাতারের আল জানুব স্টেডিয়ামে ‘জি’ গ্রুপের জমজমাট ম্যাচটির ফলাফল ৩-৩। ক্যামেরুনের গোল করেছেন ক্যাসলেট্টো, ভিনসেন্ট আবুবকর ও ছুপো মটিং। সার্বিয়ার গোল করেছেন পাবলোভিচ, মিলিনকোভিচ সাবিচ ও মিতরোভিচ।

প্রথমার্ধে ২-১ ব্যবধানে এগিয়ে ছিল সার্বিয়া। বিরতির পর ব্যবধান ৩-১ করেছিল তারা। সার্বিয়া দ্বিতীয়ার্ধে ২ গোল খেয়ে জয়ের দিকে এগিয়ে যাওয়া ম্যাচটিতে ২ পয়েন্ট হাতছাড়া করেছে।

আফ্রিকার দেশ ক্যামেরুন কাতার বিশ্বকাপ শুরু করেছিল সুইজারল্যান্ডের কাছে ১-০ গোলে হেরে। অন্যদিকে ইউরোপের দেশ সার্বিয়ার শুরুটা হয়েছিল ব্রাজিলের কাছে ২-০ গোলের পরাজয়ে। এই দুই দলের মুখোমুখি লড়াইটা বিশ্বকাপে টিকে থাকার। সেই লড়াইটা দারুণ জমেছিল।

আক্রমণ, পাল্টা-আক্রমণ এবং গোল পাল্টা-গোলে ম্যাচটি জমে উঠেছিল। ক্যামেরুন গোল করে লিড নিয়েছিল। প্রথমার্ধের ইনজুরি সময়ে দুই দুটি গোল করে ম্যাচে ২-১ ব্যবধানে এগিয়ে বিরতিতে গিয়েছিল ইউরোপের অন্যতম শক্তিশালী দলটি। কিন্তু দ্বিতীয় ম্যাচটি ভোজবাজির মতো পাল্টে দেয় ক্যামেরুন। এক পর্যায়ে ৩-১ গোলে পিছিয়ে থাকা ম্যাচটি তারা ড্র করে মাঠ ছাড়ে।

প্রথমার্ধের লড়াইয়ে সার্বিয়ার প্রধান্য থাকলেও দ্বিতীয়ার্ধটি ছিল ক্যামেরুনের। একের পর এক আক্রমণ করে তারা দুই গোল দিয়ে ম্যাচে সমতা ফিরিয়ে আনে। যদিও ৫৩ মিনিটে গোল করে নিজেদের এগিয়ে থাকার ব্যবধান ৩-১ করে ফেলেছিল সার্বিয়া।

৬৩ মিনিটে গোল করে ব্যবধান কমিয়েছেন ক্যামেরুনের ভিনসেন্ট আবুবকর। দর্শনীয় গোল ছিল সেটি। একজন ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে সামনে এগিয়ে আসার গোলরক্ষকের মাথার ওপর দিয়ে যেভাবে তিনি বলটি জালে পাঠিয়েছেন সেটা ছিল দেখার মতো।

৬৭ মিনিটে ওই ভিনসেন্ট আবুবকরের ক্রস থেকে প্লেসিংয়ে ম্যাচে সমতা আনেন ক্যামেরুনের ছুপো মটিং। এর পর একবরাই কেবল ম্যাচে এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ এসেছিল সার্বিয়ার সামনে। কিন্তু মিতরোভিচ গোলরক্ষককে একা পেয়েও ঠিকমতো শটটি নিতে পারেননি।

ম্যাচের শুরুটা ছিল সার্বিয়ার ঝড় দিয়ে। প্রথম মিনিট থেকেই তারা ঝাপিয়ে পড়ে ক্যামেরুনের রক্ষণে। ৫ মিনিটে মিতরোভিচের হেড চলে যায় ক্রসবারে বাতাস দিয়ে। মিতরোভিচই ১০ মিনিটে ডান দিক দিয়ে ঢুকে ক্যামেরুনের এক ডিফেন্ডারকে ডজ দিয়ে যে শট নিয়েছিলেন তার ফিরে আসে পোস্টে লেগে। ১৭ মিনিটে ছোট বক্স থেকে গোলরক্ষখকে একা পেয়েছিলেন মিতরোভিচ। কিন্তু তার নেওয়া শট চলে যায় বাইরে।

২০ মিনিটের পর থেকে সার্বিয়ার রক্ষণে বারবার চড়াও হয়েছিল ক্যামেরুন। পিয়েরে কুন্দের শট গোলরক্ষক ঠেকিয়ে দিলেও ২৯ মিনিটে শেষ রক্ষা হয়নি তাদের। কর্নার থেকে দ্বিতীয় পোস্টের সামনে বল পেয়ে সহজেই গোলটি করেছেন ক্যাসটেলেট্টো।

গোল হজমের পর আবার ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নেয় সার্বিয়া। ইনজুরি সময়ে দুই দুটি গোল করে তারা দারুণভাবে এগিয়ে গিয়ে বিরতিতে যায়। ইনজুরি সময়ের প্রথম মিনিটে ফ্রিকিক থেকে পাবসোভিচ গোল করে সমতা আনে। দুই মিনিট পর সার্বিয়া লিড নেয় মিলিনকোভিচ সাভিচের গোলে।

ড্র করে দুই দলই বিশ্বকাপের শেষ ষোলতে ওঠার সম্ভাবনা বাঁচিয়ে রাখলো। দুই দলেরই দুই ম্যাচ থেকে সংগ্রহ ১ পয়েন্ট করে। ক্যামেরুনের শেষ ম্যাচ ব্রাজিলের বিপক্ষে এবং সার্বিয়া খেলবে আরেক ইউরোপের দল সুইজারল্যান্ডের বিপক্ষে।
ভিন্নবার্তা ডটকম/এন



আরো




মাসিক আর্কাইভ