1. admin-1@vinnabarta.com : admin : admin
  2. admin-2@vinnabarta.com : Rumana Jaman : Rumana Jaman
  3. admin-3@vinnabarta.com : Saidul Islam : Saidul Islam
  4. bddesignhost@gmail.com : admin : jashim sarkar
  5. newspost2@vinnabarta.com : ebrahim-News :
  6. vinnabarta@gmail.com : admin_naim :
  7. admin_pial@vinnabarta.com : admin_pial :

এমপি হাবিবুর রহমান মোল্লা ছিলেন গণমানুষের নেতা

ভিন্নবার্তা প্রতিবেদক
  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ৪ জুলাই, ২০২০ ৬:৫৬ pm

প্রয়াত এমপি হাবিবুর রহমান মোল্লা ছিলেন গণমানুষের নেতা ছিলেন। নির্বাচনী এলাকার প্রতিটি পরিবারের খবর রাখতেন। প্রতিটি গণতান্ত্রিক আন্দোলনে সক্রিয় ভূমিকা রেখেছেন। রাজনীতি করতে গিয়ে সামরিক সরকার থেকে শুরু করে বিএনপি-জামায়াত সরকারের রোষানলে পড়েছেন। জেল খেটেছেন। কিন্তু কখনোই বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার প্রশ্নে আপোষ করেননি।

তিনি কর্মের মাধ্যমে বেঁচে থাকবেন। রাজনীতিতে কর্মী তৈরি, এলাকার উন্নয়নে তার অবদান স্মরণীয় হয়ে থাকবে। শনিবার দুপুরে যাত্রাবাড়ি ধলপুর কমিউনিটি সেন্টারে ঢাকা-৫ আসনের যুবলীগের সর্বস্তরের নেতাকর্মী আয়োজিত প্রয়াত এমপি হাবিবুর রহমান মোল্লার আত্মার মাগফিরাত কামনা ও দোয়া মাহফিলে বক্তারা এসব কথা বলেন। একই সঙ্গে হাবিবুর রহমান মোল্লার পরিবার থেকেই উপ-নির্বাচনে প্রার্থী করতে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে দাবি করেন যুবলীগ নেতারা।

স্বাস্থ্যবিধি মেনে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে দোয়া মাহফিলে সভাপতিত্বে করেন ৪৯ নং ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি জাহাঙ্গীর হোসেন। এতে বক্তব্যে রাখেন, ৬৪ নং ওয়ার্ড যুবলীগের সাধারন সম্পাদক এস এম সোহেল, ৬৬ নং ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি রাসেল ভুঁইয়া, ৬৮ নং ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি সাইফ ইকবাল, ৪৯ নং ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি জাহাঙ্গীর হোসেন, ৬২ নং ওয়ার্ড যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক বিপ্লব আহমেদ, ৬৭ নং ওয়ার্ড যুবলীগের সাংগঠনিক শহিদুজ্জামান আকাশ, ৪৮ নং ওয়ার্ড  যুবলীগের সাধারণ ফয়সাল আহমেদ ফালান, ৬৫ নং ওয়ার্ড যুবলীগের প্রতিনিধি শামীম আহমেদ সহ ঢাকা -৫ আসনের প্রতিটি ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি ও সাধারণগণ।

এতে প্রয়াত হাবিবুর রহমান মোল্লা বড় ছেলে ও  ডেমরা থানা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক মশিউর রহমান মোল্লা সজল, বৃহত্তর ডেমরা থানা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মাহফুজুর রহমান মোল্লা শ্যামল, কৌশিক আহমেদ জসিম, সাবেক ছাত্রনেতা নজরুল ইসলাম বাবু ও কুষকলীগ ঢাকা মহানগর দক্ষিণ এর বন-পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক হাসান মাহমুদ অপুসহ ঢাকা-৫ আসনের আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। ৪৯ নং ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, প্রয়াত এমপি হাবিবুর রহমান মোল্লা ছিলেন গণমানুষের নেতা ছিলেন। নির্বাচনী এলাকার প্রতিটি পরিবারের খবর রাখতেন। প্রতিটি গণতান্ত্রিক আন্দোলনে সক্রিয় ভূমিকা রেখেছেন।

তিনি কখনোই বঙ্গবন্ধু ও নেত্রীর প্রশ্নে আপোষ করেননি। ৬৮ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও যুবলীগের সাধারন সম্পাদক মাহমুদুল হাসান পলিন বলেন, ঢাকা -৫ নির্বাচনী এলাকার মানুষের সুখ দুঃখে সাথি ছিলেন হাবিবুর রহমান মোল্লা। এই আসনটি এক সময় বিএনপি-জামায়াতের ঘাটি হিসেবে পরিচিত ছিল। হাবিবুর রহমান মোল্লা দিন রাত অবিরাম পরিশ্রম করে কর্মী তৈরি করার মধ্য দিয়ে আওয়ামী লীগের ঘাটি হিসেবে গড়ে তুলেছেন। তাই আসন্ন উপনির্বাচনে এই পরিবার থেকেই  উপনির্বাচনে মনোনয়ন দিতে আমরা আওয়ামী লীগ সভানেত্রী বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার কাছে জোর দাবি জানাচ্ছি। একই দাবি ৬৪ নং ওয়ার্ড যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম সোহেল ও ৬২ নং ওয়ার্ড যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক  বিপ্লব আহমেদ। ৪৮ নং ওয়ার্ড যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল আহমেদ ফালান বলেন, ঢাকা প্রবেশ হচ্ছে ঢাকা-৫ আসন।

এই আসনে জনপ্রিয় ও গ্রহণ ব্যক্তিকেই মনোনয়ন দেওয়া প্রয়োজন। নেত্রীর কাছে সব খবর আছে। আমরা চাই প্রয়াত গণমানুষের নেতা মোল্লা সাহেবের পরিবার থেকেই প্রার্থী করা হোক। দোয়া মাহফিলে প্রয়াত হাবিবুর রহমান মোল্লার বড় ছেলে মশিউর রহমান সজল আপ্লত কণ্ঠে বলেন, আমার বাবা এই এলাকার মানুষের কল্যাণে অমৃত্যু কাজ করেছেন। আমরা সন্তানের চেয়ে এলাকার মানুষ তার কাছে বেশি আপন ছিল। সকল কর্মীর জন্য তার দরজা খোলা ছিল। আব্বা রাজনীতি করতে গিয়ে অনেকবার জেল খেটেছেন। নির্যাতনের শিকার হয়েছেন।

কিন্তু কখনোই বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার প্রশ্নে আপোষ করেননি। তিনি বলেন, আমার বাবা এই এলাকার মানুষকে কতটুকু ভালবাসেন, আপনাদের কথাগুলোই তার প্রমাণ। আমার পিতার জন্য দোয়া করবেন, আল্লাহ যেন তাকে বেহেশত নসিব করেন। আমার অভিভাবক প্রিয় নেত্রী ও নির্বাচনী এলাকার মানুষ যে সিদ্ধান্ত নেবেন আমরা পরিবারের সদস্যরা মাথা পেতে নিব। পিতা যেমনভাবে আপনাদের সেবা করেছেন আমরাও অমৃত্যু আপনাদের পাশে থাকতে চাই। সুযোগ চাই।



আরো




মাসিক আর্কাইভ