শিরোনাম

এবার ৮ সংবাদকর্মীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিচ্ছে এসএটিভি

নিজস্ব প্রতিবেদক

এসএটিভির প্রোগ্রামের ১০ জনকে ছাঁটাইয়ের পর এবার আরো ৮ সংবাদকর্মীকে কর্মবিরতি দিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। সম্প্রতি প্রতিষ্ঠানটির শতাধিক কর্মীকে চাকরিচ্যুত করার চক্রান্তসহ নানাভাবে নাজেহাল করার জের ধরে সব পর্যায়ের কর্মীরা একজোট হয়ে হেড অব নিউজ মাহমুদ আল ফয়সালকে অফিস থেকে বের করে দেন।

এ ঘটনায় দায়ে এবার প্রথম ধাপে স্টাফ রিপোর্টার মো. জুনায়েদ আলী (সাকী), পিএম বিটের স্টাফ রিপোর্টার এস এম মাহমুদুল হাসান, স্টাফ রিপোর্টার মাহমুদুল হক সরকার, স্পোর্টসের স্টাফ রিপোর্টার মো. আরিফ হোসেন, স্টাফ রিপোর্টার মঞ্জুরুল হাসান মিলন, স্টাফ রিপোর্টার মো. মুহসীন কবীর, সিনিয়র নিউজরুম এডিটর খালিদ বিন আনিস এবং ক্যামেরাম্যান মো. আনোয়ার হোসেনকে কর্মবিরতি দেয়া হয়েছে।

এসএটিভির অ্যাডমিন অ্যান্ড এইচ আরের সিনিয়র এক্সিকিউটিভ মাহমুদ আল মোজাহিদ স্বাক্ষরিত এক অফিসিয়াল চিঠিতে উল্লেখ করেছেন, এই ৮ গণমাধ্যমকর্মী গত ২৭ নভেম্বর, ২০১৯ তারিখে এসএটিভির বার্তা প্রধান মাহমুদ আল ফয়সালকে লাঞ্ছিত করাসহ টেনেহেচড়ে অফিসের বাইরে বের করে দেন। যা প্রশাসনিক ও দাপ্তরিক আচরণ ও শৃংখলা পরিপন্থি। তাই কেন কঠোর দাপ্তরিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে না, তা জানিয়ে পত্র প্রাপ্তির ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ব্যাখ্যা প্রদানের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। একইসঙ্গে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত কর্ম থেকে বিরত রাখা হয়েছে তাদের। যা ২৯ নভেম্বর থেকে কার্যকর হবে বলেও উল্লেখ করা হয়েছে।

হেড অব নিউজ মাহমুদ আল ফয়সালের চক্রান্তে একেরপর এক ছাঁটাই এবং নাজেহালসহ শতাধিক গণমাধ্যমকর্মীকে চাকরিচ্যুত করার ষড়যন্ত্রে অফিসের সবাই বিক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন। এরই জের ধরে গেল ২৭ নভেম্বর রাত পোনে ১০টার দিকে তাকে অফিস থেকে বের করে দেয়া হয়। অথচ বার্তা বিভাগের শুধু ৮ জনকে চাকরিচ্যুত করতে কর্মবিরতি দেয়াসহ ব্যাখ্যা চাওয়ায় পুরো অফিসজুড়ে আবারও শুরু হয়েছে উত্তেজনা। গুঞ্জন চলছে হেড অব নিউজ মাহমুদ আল ফয়সালের ছাঁটাই ফর্মূলা শেষ পর্যন্ত কার্যকর করতে যাচ্ছে মালিকপক্ষ।

এদিকে, বকেয়া বেতন-ভাতা দাবি করায় কর্মবিরতি দেয়া ৮ গণমাধ্যমকর্মীর মধ্যে ৭ জনকে চাকরিচ্যুত করা হয়েছিল। পরে ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের (ডিইউজে) নেতৃত্বে সাংবাদিক, শ্রমিক, কর্মচারী ও কলাকুশলীদের নিয়ে আন্দোলন গড়ে তোলায় মালিকপক্ষ পিছু হটে। সেই সঙ্গে গেল ৭ অক্টোবর ত্রিপক্ষীয় বৈঠকে যথাসময়ে বেতন-ভাতা দেয়াসহ ১৩ দফা সিদ্ধান্ত মেনে নিয়ে স্বাক্ষর করেন এসএটিভির ব্যবস্থাপনা পরিচালক সালাহউদ্দিন আহমেদ।

কিন্তু সেই সিদ্ধান্ত অনুযায়ী এখনও বেতন-ভাতা পরিশোধ করা হয়নি। তিন মাসের বেতন এখনও বকেয়া। অথচ এরইমধ্যে হেড অব নিউজ মাহমুদ আল ফয়সালের চক্রান্তে শুরু করেছেন কর্মী ছাঁটাই। গণমাধ্যমকর্মীদের ছাঁটাই এবং সবশেষ ৮ জনকে কর্মবিরতি দেয়ার বিষয়ে এসএটিভিতে যোগাযোগ করা হলেও কেউ কথা বলতে রাজি হননি।

তবে নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, মাহমুদ আল ফয়সালকে শুধু বার্তা বিভাগের ৮ জন বের করেনি। পুরো অফিসের সবাই মিলে বের করেছে। কারণ, তার চক্রান্তেই এখন সবাই অনিরাপদ। কর্মবিরতি যদি দিতে হয়, পুরো অফিসের সবাইকেই কর্মবিরতির চিঠি ধরিয়ে দেয়া হোক। শুধু ৮ জনকে কর্মবিরতি দেয়ার ভেতর দিয়ে আবারও হেড অব নিউজ মাহমুদ আল ফয়সালের চক্রান্তই প্রকাশ পেয়েছে।

এনআই/শিরোনাম বিডি

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
আরো পড়ুুন