শিরোনাম

আশুলিয়ায় মা-ছেলেসহ ৪ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার

উপজেলা প্রতিবেদক, সাভার

সাভারে আশুলিয়ার নিরিবিল ও কাঠগড়া এলাকায় আলাদা অভিযানে মা-ছেলেসহ চার মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেপ্তার করেছে ঢাকা জেলা উত্তর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। এসময় তাদের কাছ থেকে বিপুল পরিমান ইয়াবা ও হিরোইন উদ্ধার করা হয়েছে।

সোমবার গভীর রাতে আশুলিয়ার নিরিবিলি মুক্তধারা এলাকা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

নিরিবিলি এলাকা থেকে গ্রেপ্তারকৃতরা হলো- আশুলিয়ার নিরিবিলি মুক্তধারা এলাকার আব্দুল জলিলের ছেলে তুহিন সরদার (২৪) ও তার মা বকুল বেগম (৫২)।

এছাড়া কাঠগড়া এলাকা থেকে গ্রেপ্তারকৃতরা হলো- শেরপুর জেলার নালিতাবাড়ি থানার আন্ধার পাড়া গ্রামের মোঃ আজিজুল হকের ছেলে মোঃ বাদল মিয়া ওরফে মিলন (২৮) ও বি-বাড়িয়া জেলার বাঞ্ছারামপুর থানার সলিমাবাদ গ্রামের আব্দুস সালামের ছেলে মোঃ আব্দুর কাদির (৩৪)। বর্তমানে কাঠগড়া দুকাটি এলাকার আল-আমিন সরকারের বাড়ির ভাড়াটিয়া।

ঢাকা জেলা উত্তর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) উপ-পরিদর্শক কাউছার সুলতান বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে খবর পেয়ে আশুলিয়ার নিরিবিলি মুক্তধারা এলাকায় অভিযান পরিচালনা করা হয়। এসময় মাদক ব্যবসায়ী তুহিন সরদার পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে কৌশলে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। পরে অভিযান চালিয়ে প্রথমে মাদক ব্যবসায়ী তুহিন সরদারকে আটক করা হয়। এসময় তার দেহ তল্লাশি করে ২২০ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। পরে তুহিনকে সঙ্গে নিয়ে তার বাড়িতে অভিযান চালানো হয়। এসময় তুহিনের মায়ের কাছে থাকা ২২০ পুড়িয়া হিরোইন ও বাড়িতে তল্লাশী চালিয়ে মোট ১ হাজার ৫০০ পিস ইয়াবা ও ৭৭০ পুড়িয়া হিরোইন উদ্ধার করা হয়।

তিনি আরো জানান, মাদক ব্যবসায়ী তুহিন সরদার ও মা বকুল বেগম আশুলিয়া ও ধামরাই থানা এলাকাসহ আশ-পাশের থানা এলাকার বিভিন্ন স্থানে দীর্ঘদিন ধরে মাদক ব্যবসা চালিয়ে আসছিলো। তুহিনের বিরুদ্ধে ৫টি মাদক মামলা ও তুহিনের মায়ের বিরুদ্ধে ৩টি মাদক মামলা চলমান রয়েছে। গ্রেপ্তারকৃতরা চিহ্নত মাদক ব্যবসায়ী। আশুলিয়া থানায় তাদের বিরুদ্ধে মাদক আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

অন্যদিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সোমবার রাতে ঢাকা জেলা উত্তর গোয়েন্দা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোঃ গণি মিয়ার নেতৃর্তের আশুলিয়ার কাঠগড়া চৌরাস্তার পাশে মানিকের কলার আড়ৎ এর অভিযান চালিয়ে আসামীদের গ্রেপ্তার করা হয়। এসময় তাদের দেহ তল্লাশী করে বাদল মিয়ার কাছ থেকে ১৬০ পিস এবং আব্দুল কাদিরের কাছ থেকে ৯০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়।

ঢাকা জেলা উত্তর গোয়েন্দা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ আবুল বাশার বলেন, ঢাকা জেলা পুলিশ সুপারের নির্দেশে মাদকের বিরুদ্ধে গোয়েন্দা পুলিশের ধারাবাহিক অভিযানের অংশ হিসেবে বিপুল পরিমান ইয়াবা ও হিরোইন উদ্ধার করা হয়েছে। মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে গোয়েন্দা পুলিশের এই অভিযান আরও জোরদার করা হবে।

এএস/শিরেনামি বিডি

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত দিন
আরো পড়ুুন